Bangla24x7 Desk : জুনিয়র ডাক্তারদের মারধরের ঘটনায় শনিবার রায়গঞ্জ সিজেএম আদালতে আত্মসর্মপণ করেন অভিযুক্ত উত্তর দিনাজপুর জেলা মহিলা তৃণমূল কংগ্রেস সভানেত্রী তথা ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের কো-অর্ডিনেটর চৈতালি ঘোষ সাহা। এরপরই তাঁর জামিনের আবেদন মঞ্জুর করেন বিচারক। জানা গিয়েছে, চৈতালির বিরুদ্ধে রায়গঞ্জ থানায় অভিযোগ জানানো হয়। পুলিশ কর্তব্যরত সরকারি কর্মীকে মারধর, সরকারি কাজে বাধা, অবৈধ জমায়েত সহ একাধিক ধারায় মামলা রুজু করে পুলিশ। পুলিশ এই মামলায় বৃহস্পতিবার রাতেই রোগীর পরিবারের দু’জনকে গ্রেফতার করেছিল। শুক্রবার ধৃতদের রায়গঞ্জ আদালতে তোলা হয়। জামিনের আবেদন করলে তা নাকচ হয়ে যায়। শনিবার আবারও তাঁদের আদালতে পেশ করা হয়। শনিবার ধৃত দু’জনের পাশাপাশি চৈতালি ঘোষ সাহাও আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। এদিন তিনজনেরই জামিন মঞ্জুর হয় বলে সরকারি আইনজীবীরা জানান।

পেটের ব্যথায় কাতর দেড় বছরের শিশু – আর ওদিকে মোবাইলে ক্রিকেট দেখতে ব্যস্ত চিকিৎসকরা। শিশুকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ। ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রোগীদের স্যালাইন খুলে সেই স্ট্যান্ড দিয়েই রোগীর পরিবারকে মারধর করে বলে অভিযোগ , রোগীর আত্মীয়দের মারধরের অভিযোগ হাসপাতালের জুনিয়র ডাক্তারদের একাংশের বিরুদ্ধে। ঘটনার জেরে রণক্ষেত্রের চেহারা নিল রায়গঞ্জ গভর্মেন্ট মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল। পরিস্থিতি এতটাই উত্তেজনাপূর্ণ হয়ে ওঠে যে মারমুখী দু’পক্ষকে আটকাতে হাসপাতালের ভিতরে ঢুকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ , ঘটনাস্থলে পৌঁছয় র‍্যাফ। প্রতিবাদে হাসপাতালের জুনিয়র ডাক্তাররা মেডিক্যাল কলেজের ইমার্জেন্সির সামনে ধর্নায় বসে থেকে হাসপাতালের আউটডোর বন্ধ করে দেয়। নিরাপত্তার দাবিতে কর্মবিরতির পথে হাঁটেন জুনিয়র ডাক্তাররা। তবে এই বিষয়ে প্রকাশ্যে মুখ খুলতে নারাজ জুনিয়র চিকিৎসকরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *