img-2

Bangla24x7 Desk : উত্তর বঙ্গোপসাগরে তৈরি হয়েছে আরও একটি নিম্নচাপ। আবহাওয়াবিদরা জানাচ্ছেন, মায়ানমারের উপরে ঘূর্ণাবর্ত রয়েছে। সেই ঘূর্ণাবর্ত আজই নিম্নচাপে পরিণত হবে। শক্তি বাড়িয়ে কাল গভীর নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে। নিম্নচাপটি আরও শক্তি বাড়িয়ে ওড়িশার দিকে এগোবে। এর ফলে ১৩ ও ১৪ তারিখ বৃষ্টি হবে দক্ষিণবঙ্গে। এর মধ্যে দক্ষিণের সাতটি জেলায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। উপকূল এলাকাগুলিতে ঝোড়ো হাওয়ার পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস।

img-3

রবিবার ভারী বৃষ্টি হতে পারে কলকাতা সহ দুই ২৪ পরগনা, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর, বাঁকুড়া, বীরভূম, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান, পুরুলিয়া ও ঝাড়গ্রামে। ভারী বৃষ্টির কারণে উপকূলে জারি হয়েছে সতর্কতা। দিঘা, মন্দারমণির সৈকতে পর্যটকদের সমুদ্রে নামতে বারণ করা হয়েছে। ১৪ তারিখ কলকাতাতেও বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে। ১৫ তারিখে কলকাতায় হালকা বৃষ্টি হবে। উত্তরবঙ্গের ক্ষেত্রে আগামী দুই দিন ১৩ ও ১৪ ওপরের পাঁচটি জেলা বৃষ্টিপাত বেশি হবে। বৃষ্টিপাত শুরু হলে দক্ষিণবঙ্গে তাপমাত্রা খানিকটা কমবে। উত্তরবঙ্গে ও বৃষ্টিপাত শুরু হলে তাপমাত্রা কমবে।

জানা গিয়েছে, দক্ষিণবঙ্গে ৩৮ শতাংশ বৃষ্টির ঘাটতি রয়েছে। উত্তরবঙ্গে ২ শতাংশ বৃষ্টি কমবে। কলকাতার ক্ষেত্রে ৪৪ শতাংশ বৃষ্টির ঘাটতি রয়েছে। আষাঢ় শেষ হয়ে শ্রাবণ পড়েছে। তবুও বর্ষার তেমন সুখ পায়নি দক্ষিণবঙ্গ। তবে উত্তরবঙ্গে বর্ষা মুখ ফেরায়নি।চলতি বছরে বৃষ্টির যে ঘাটতি হয়েছে তা মেনে নিয়েছে আবহবিদরা। ভ্যাপসা গরমে যখন নাজেহাল দক্ষিণের বাসিন্দারা তখনই সুখবর শোনাল আলিপুর আবহাওয়া অফিস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *