Bangla24x7 Desk : প্রাথমিক শিক্ষক প্রশিক্ষণের কোর্স ডিপ্লোমা ইন এলিমেন্টারি এডুকেশনের পরীক্ষার নিয়মে বড়সড় পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নিল প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। সিদ্ধান্ত হয়েছে, ডিএলএড’এর পরীক্ষা হোম সেন্টারে হবে না। অর্থাৎ নিজের কলেজে পরীক্ষা দিতে পারবেন না পরীক্ষার্থীরা। পরিবর্তে, নির্ধারিত অন্য কলেজ তথা পরীক্ষাকেন্দ্রে গিয়ে পরীক্ষা দিতে হবে তাঁদের। আগামী ২৮ নভেম্বর থেকে ডিএলএড পার্ট-২ পরীক্ষা শুরু হচ্ছে। এই পরীক্ষা থেকে নয়া নিয়ম কার্যকর করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের সভাপতি গৌতম পাল।

এ প্রসঙ্গে পর্ষদ সভাপতি গৌতম পাল বলেন, ‘‘ডিএলএড-এর পরীক্ষা নিয়ে একাধিক অভিযোগ পেয়েছি। সেকারণেই পরীক্ষায় হোম সেন্টার না রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বদলে অন্য পরীক্ষাকেন্দ্রে পরীক্ষা হবে।’’ প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের অধীনে ৫৯৬টি বেসরকারি ও ৬০টি সরকারি প্রাথমিক শিক্ষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র তথা কলেজ রয়েছে। গত মাসেই সরকারি ও বেসরকারি সব ডিএলএড কলেজগুলির প্রিন্সিপালদের সঙ্গে বৈঠক করেন পর্ষদ সভাপতি গৌতম পাল। প্রতিটি প্রতিষ্ঠানকে সঠিক আচরণবিধি মেনে চলার বার্তা দেন তিনি। অন্যথায় কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারিও দিয়েছিলেন।

বহুদিন ধরেই ডিএলএড কলেজগুলির বিরুদ্ধে পরীক্ষা সংক্রান্ত বিভিন্নরকম অভিযোগ উঠে এসেছে। অভিযোগ, নিয়ম মেনে পরীক্ষা হত না ডিএলএড কলেজগুলিতে। কোথাও কোথাও ১২ ঘণ্টা আগে পরীক্ষার্থীদের হাতে প্রশ্নপত্র পৌঁছে যেত, পরীক্ষার হলে বই খুলে লিখতে দেওয়া হত, এরকম অভিযোগও উঠে আসে। সেইসব অভিযোগের ভিত্তিতেই স্বচ্ছতার সঙ্গে পরীক্ষা পরিচালনায় এই নতুন নিয়ম চালুর সিদ্ধান্ত নেয় প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *