Bangla24x7 Desk : রেশন দুর্নীতিতে ED তলব , ‘ষড়যন্ত্র’র গন্ধ পাচ্ছেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। ঋতুপর্ণা আরও জানালেন, ”সামনে আমার অনেকগুলো ছবির মুক্তি রয়েছে। তার মাঝে এমন খবর, মোটেই আমার জন্য ভালো নয়। আমার সম্মানহানি হল। সারাজীবন পরিশ্রম করছি। হঠাৎ করে আমার নামে এমন বলে দেওয়া খুবই অন্যায়।” তাহলে কি ইডির ডাকে যাবেন? ঋতুপর্ণার স্পষ্ট জাবাব, ”এ ব্যাপারে আইনজীবীর পরামর্শ নেব।” আগামী ৫ জুন ইডি দপ্তরে ডাকা হয়েছে অভিনেত্রীকে। রেশন দুর্নীতির টাকা অভিনেত্রীর সংস্থায় গিয়েছে। সেই কারণে ইডির তলব বলে সূত্র মারফত জানতে পারা যাচ্ছে। ইডি তলব নিয়ে ঋতুপর্ণা জানালেন, ”খুব অবাক হয়েছি শুনে। আমি এ ব্যাপারে সত্যিই  কিছু জানি না। রেশন দুর্নীতি কী ? সে সম্পর্কে আমার কোনও ধারনাই নেই। আমার কলকাতার বাড়িতেও তো কোনও চিঠি আসেনি!”

এর আগে ২০১৯ সালের জুলাইয়ে অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তকে রোজভ্যালি কাণ্ডে তদন্তকারী সংস্থা ইডি জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল। মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে ঋতুপর্ণা ও প্রসেনজিৎ জুটি পঞ্চাশতম ছবি অযোগ্য। ছবিটি পরিচালনা করেছেন কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়। ইতিমধ্যেই মুক্তি পেয়েছে এই ছবির ট্রেলার। গত সপ্তাহে এই ছবির প্রচারে ব্যস্ত ছিলেন ঋতুপর্ণা। তার পরই সপ্তাহের শুরুতে মার্কিন মুলুকে উড়ে যান টলিউডের অন্যতম ব্যস্ত অভিনেত্রী। উল্লেখ্য, রেশন দুর্নীতি মামলার তদন্তে নেমে আগেই গ্রেফতার হয়েছিলেন রাজ্য়ের প্রাক্তন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। এছাড়াও গোয়েন্দারা গ্রেফতার করেছিলেন চালকল মালিক বাকিবুর রহমানকে। সেই মামলার নিষ্পত্তি এখনও পর্যন্ত হয়নি। তদন্ত চলছে। প্রসঙ্গত, টলিউডের একাধিক অভিনেতা-অভিনেত্রীকে তলব করেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী এজেন্সি। দেব, নুসরত, বনি সেনগুপ্তরা হাজিরা দিয়েছেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা এজেন্সির কাছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *