img-2

Bangla24x7 Desk : এশিয়ার ধনীতম ব্যক্তি গৌতম আদানি একদিনে বিপুল পরিমাণ সম্পত্তি খোয়ালেন। হিন্ডেনবার্গের এক গবেষণাপত্র থেকে তেমনটাই জানা গিয়েছে। মার্কিন সংস্থার দাবি, একদিনে তাঁর ক্ষতির পরিমাণ সাড়ে ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ভারতীয় অঙ্কে যা দাঁড়াচ্ছে প্রায় ৪৫ হাজার কোটি টাকা। ফিচ গোষ্ঠীর সংস্থা ক্রেডিট সাইটসের রিপোর্টে আগেই দাবি করা হয়েছে, ব্যবসা বৃদ্ধির অতিরিক্ত উচ্চাকাঙ্ক্ষায় ঋণ-নির্ভর হলে ঋণের ফাঁদে পড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। এর ফলে প্রতিকূল পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে আদানিদের সংস্থাগুলির জন্য। যদিও এই আশঙ্কাকে উড়িয়ে দিয়েছেন আদানি।

কী বলা হয়েছে ওই রিপোর্টে ? সেখানে দাবি করা হয়েছে, আদানি নিয়ন্ত্রিত শীর্ষ সংস্থাগুলির যথেষ্ট ঋণ রয়েছে। এর ধাক্কাতেই এই পরিস্থিতি। তবে আদানি গ্রুপ এই দাবি অস্বীকার করেছে। উল্লেখ্য , গত কয়েক বছরে আদানির উত্থান প্রায় উল্কার মতো। প্রথম থেকেই মুকেশ আম্বানিকে কড়া চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দিয়েছিলেন তিনি। ক্রমে তাঁকে পিছনে ফেলে হয়ে ওঠেন এশিয়ার ধনীতম ব্যক্তি। বিশ্বেরও শীর্ষস্থানীয় ধনীদের অন্যতম তিনি।

img-3

২০২২ সালের প্রথম থেকেই লাগাতার বাড়তে থাকে আদানির সম্পত্তির পরিমাণ। সেবছরের ফেব্রুয়ারি মাসেই মুকেশ আম্বানিকে টপকে যান তিনি। এ যেন এক রূপকথার উত্থান। আর এই সাফল্যের পিছনে ছিল তাঁর একরোখা জেদ ও অধ্যবসায়। হিরের ব্যবসায় মন দিতেই রাতারাতি কলেজ ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন আদানি। কিন্তু এই সাফল্যের মাঝেও রয়েছে আশঙ্কার কাঁটা।

আদানি গ্রুপ জানিয়ে দিয়েছে, যে ঋণের বোঝা ঘিরে এত কথা, সেই বোঝা এখন অনেকটাই কমিয়ে ফেলেছে তারা। ১৫ পাতার রিপোর্টে সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, ধারাবাহিক ভাবে ঋণকে ডি-লিভার করছে আদানি গ্রুপ। এবার ফের আদানি গ্রুপের বিপুল ক্ষতি সম্পর্কে নতুন দাবি সামনে এল।

 

               

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *