Bangla24x7 Desk : চোপড়ায় এক যুবতী ও তাঁর পুরুষ সঙ্গীকে লাঠির গোছা দিয়ে তালিবানি কায়দায় পিটিয়ে গ্রেফতার হয়েছেন চোপড়ার বিধায়ক ঘনিষ্ঠ তৃণমূল নেতা জেসিবি। আসল নাম তাজমুল। নির্মম অত্যাচারের ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে মহিলাকে বেধড়ক মারধর করতে দেখা গিয়েছে তাকে। যদিও ওই ভিডিওর সত্যতা যাচাই করেনি Bangla24x7। স্থানীয়দের দাবি, ধৃত জেসিবি চোপড়ার বিধায়ক তৃণমূলের হামিদুর রহমানের ‘ডান হাত’ নামে পরিচিত। যদিও জেসিবিকে চেনেন না বলেই দাবি বিধায়কের। প্রসঙ্গত ,  পঞ্চায়েত ভোটে মনোনয়নের শেষ দিনে মিছিল করে মনোনয়ন জমা দিতে যাচ্ছিলেন বাম ও কংগ্রেস জোটের প্রার্থীরা। মনোনয়ন দিতে যাচ্ছিলেন নিহত সিপিএম নেতা মনসুর নইমুল। অভিযোগ, জোট প্রার্থীদের মিছিলে তৃৃণমূল কর্মীরা গুলি চালান। গুলি লেগে মৃত্যু হয় মনসুরের। সেই ঘটনায় মূল অভিযুক্ত জেসিবি। থানায় তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর-ও দায়ের হয়। সে সময়ে গ্রেফতার হন জেসিবি। কিন্তু দিন পনেরোর মধ্যে ছাড়াও পেয়ে যান তিনি।

ভাইরাল ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, মাটিতে ফেলে এক যুবক ও যুবতীকে লাগাতার লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করছেন জেসিবি। চারিদিকে ঘিরে দাঁড়িয়ে আছেন মহিলা-সহ অসংখ্য মানুষজন। অথচ কেউ রক্ষা করার জন্য এগিয়ে যেতে দেখা যায়নি। থামাননি কেউ। না। বরং যুগলকে পাশবিকভাবে মারধরের মর্মান্তিক দৃশ্য রীতিমতো তাড়িয়ে তাড়িয়ে উপভোগ করছেন তাঁরা। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করেছিলেন ওই তরুণ-তরুণী। তার পর গ্রামে সালিশি সভার আয়োজন করা হয়। কয়েক ঘণ্টার মধ্যে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। পুলিশ প্রশাসনের কাছে না গিয়ে নিজের হাতে আইন তুলে নিয়ে স্বেচ্ছাচারিতার ঘটনায় তীব্র সমালোচনার ঝড় ওঠে জেলা জুড়ে। স্বতঃপ্রণোদিত মামলা রুজু করে জেসিবি-কে গ্রেফতার করেছে। ইসলামপুর আদালতে পেশ করা হয়। ৫ দিনের পুলিশি হেফাজতে সালিশিকাণ্ডে ধৃত তৃণমূল নেতা তাজমূল ওরফে জেবিসি। ১০ দিনের পুলিশ হেফাজত চেয়েছিল পুলিশ। কিন্তু, পাঁচদিনের হেফাজত মঞ্জুর ইসলামপুর আদালতের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *