img-2

Bangla24X7 Desk : গরু পাচার মামলায় অনুব্রত মণ্ডলের হিসারক্ষক মণীশ কোঠারিকে গ্রেফতার করল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)৷ মঙ্গলবার মণীশকে প্রায় ১০ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়৷ দিল্লিতে এই জিজ্ঞাসাবাদ করে ইডি৷ কিন্তু জিজ্ঞাসাবাদের সামনে দাঁড়িয়ে সঙ্গত জবাব দিতে পারেননি মণীশ কোঠারি৷ সেই কারণেই তাঁেক শেষ পর্যন্ত গ্রেফতার করা হল বলে ইডি সূত্রে খবর৷

img-3

মণীশ কোঠারি বলেছিলেন, তিনি একজন চার্টাড অ্যাকাউন্টেন্ট, তিনি যা যা করেছেন সব অনুব্রত মণ্ডলের কথাতেই করেছেন । অন্যদিকে অনুব্রতর দাবি, তিনি কিছু জানেন না। ফলে মঙ্গলবার অনুব্রত ও মনীশকে অনুব্রত মণ্ডলকে গ্রেপ্তারের পর থেকেই ইডির নজরে ছিলেন মণীশ কোঠারি। একাধিকবার বিভিন্ন জায়গায় তাঁকে তলব করেন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা। দীর্ঘক্ষণ জেরা করা হয়। একাধিক নথি চাওয়া হয় তাঁর কাছে। মুখোমুখি বসানো হয় জেরায়। নথি দেখিয়ে জেরা করা হবে। সুকন্যার নামে তিন কোটি টাকার ফিক্সড ডিপোজিট। একজন সাধারণ শিক্ষিকা হয়ে কোটি কোটি টাকা ফিক্সড ডিপোজিট বা মিলের জন্য কোথা থেকে টাকা এল ? এর আগে ইডিতে মণীশ কোঠারি ও সুকন্যাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল।

সুকন্যা বলেছিলেন ” যা জানেন সব জানেন মণীশ কোঠারি”। তাই মণীশ কোঠারির সঙ্গে মুখোমুখি অনুব্রতকে বসানো হয়। সমস্ত হিসাব নিকেশ রাখতেন মণীশ। নথি দেখিয়ে অনুব্রত মুখোমুখি জেরা করা হয় মণীশকে। অনুব্রত মণ্ডলকে গ্রেপ্তারের পর থেকেই ইডির নজরে ছিলেন মণীশ কোঠারি। একাধিকবার বিভিন্ন জায়গায় তাঁকে তলব করেন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা। দীর্ঘক্ষণ জেরা করা হয়। একাধিক নথি চাওয়া হয় তাঁর কাছে। জানা গিয়েছে, তাঁর বক্তব্যে অসংগতি থাকায় এই গ্রেপ্তারির সিদ্ধান্ত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *