Bangla24x7 Desk : কার্গিল যুদ্ধ বেঁধেছিল পাকিস্তানের জন্যই ! দায়স্বীকার করলেন তৎকালীন পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। তবে এর দায় তৎকালীন পাক সেনাপ্রধান পারভেজ মুশারফের ঘাড়ে চাপিয়েছেন তিনি। তাঁর নির্দেশেই ভারতের মাটিতে অনুপ্রবেশ হয়েছিল বলে দাবি নওয়াজের।পাক প্রধানমন্ত্রীর এই মন্তব্য আপাতত সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল। তৎকালীন পাক প্রধানমন্ত্রীর স্বীকারোক্তি, ১৯৯৯-এর লাহোর চুক্তি ভেঙেছিল পাকিস্তানই। দেরি হলেও, অবশেষে নিজের দোষ স্বীকার করল পাকিস্তান। ২৫ বছর পর স্বীকার করল যে ভারতের সঙ্গে তারা অন্যায় করেছিল। আর এই দোষ স্বীকার করে নিলেন খোদ পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ!

নওয়াজ শরিফ বলেন, “১৯৯৮ সালের ২৮ মে, পাকিস্তান পাঁচটি পারমাণবিক পরীক্ষা চালিয়েছিল। এরপর বাজপেয়ী সাহেব এখানে আসেন এবং আমাদের সঙ্গে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেন। কিন্তু আমরাই ওই চুক্তি ভেঙেছিলাম…ওটা আমাদের ভুল ছিল।” পাকিস্তানের পারমাণবিক পরীক্ষার ২৬ তম বার্ষিকী উপলক্ষে পিএমএল-এন সভায় জনগণকে ভাষণ দিতে গিয়েই ভারতের সঙ্গে চুক্তি ভঙ্গের প্রসঙ্গ তোলেন নওয়াজ শরিফ। তিনি জানান যে ১৯৯৯ সালের লাহোর চুক্তি, যা ভারতের তৎকালীন ভারতের প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ীর সঙ্গে তিনি স্বাক্ষর করেছিলেন, তা আসলে পাকিস্তানই ভেঙেছিল। ৭২ বছর বয়সী নওয়াজ শরিফ আরও বলেন যে কীভাবে তাঁকে ২০১৭ সালে পাকিস্তানের তৎকালীন প্রধান বিচারপতি সাকিব নিসার একটি মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছিলেন।

তিনি বলেন যে তাঁর বিরুদ্ধে হওয়া সমস্ত মামলা মিথ্যা। বরং পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) এর প্রতিষ্ঠাতা তথা প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে মামলা গুলি সত্য। প্রসঙ্গত, ১৯৯৯ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি দুই পড়শি দেশের মধ্যে শান্তি ও সুরক্ষা বজায় রাখার জন্য এবং দুই দেশের মানুষের মধ্যে সৌভ্রাতৃত্ব বজায় রাখার জন্য লাহোর চুক্তি স্বাক্ষর করা হয়েছিল। কিন্তু এর কয়েক মাস পরেই, ১৯৯৯ সালে পাকিস্তান জম্মু-কাশ্মীরের কার্গিল প্রদেশে অনুপ্রবেশ করে এবং তা দখল করার চেষ্টা করে, যার জেরে কার্গিলের যুদ্ধ শুরু হয়। সেই সময় পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন নওয়াজ শরিফ। সেনা জেনারেল ছিলেন পারভেজ মুশারফ। যুদ্ধে ভারত জয়ী হয়। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *