img-2

Bangla24x7 Desk : জামিনের আবেদন খারিজ। শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় হুগলির ছাত্রনেতা কুন্তল ঘোষ , নীলাদ্রি ঘোষ এবং মানিক-ঘনিষ্ঠ তাপস মণ্ডলকে ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিল আলিপুর আদালত। তবে বৃহস্পতিবার সিবিআই তদন্ত নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন বিচারক। শ্রীরামকৃষ্ণের প্রসঙ্গ টেনে বিচারকের প্রশ্ন – ”রামকৃষ্ণের নাম শুনেছেন? তিনি ভক্তের ভগবান, কিন্তু গুরু কে? খুঁজে বের করুন অভিযুক্তদের গুরু কে।”

img-3

এদিন নীলাদ্রি ঘোষ সম্পর্কে তাঁর আইনজীবী যুক্তি সাজান, উনি পাবলিক সার্ভেন্ট নন। তাপসের কথায় তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাই তিনি জামিন পেতেই পারেন। ওঁর সঙ্গে এসবের সম্পর্ক নেই বলে দাবি করেন আইনজীবী। তাতেই বিচারকের প্রশ্ন প্রতি তিনি প্রশ্ন করেন, ”এজেন্ট কে জানেন? গুরু কে? যিনি ভক্ত আর ভগবানের মাঝে থাকে। রামকৃষ্ণের নাম শুনেছেন? তিনি ভক্তের ভগবান, কিন্তু গুরু কে? খুঁজে বের করুন অভিযুক্তদের গুরু কে।”  টেট মামলায় ইডির হাতে কুন্তল ঘোষ গ্রেপ্তার হওয়ার পর সিবিআই (CBI)তাঁকে নিজেদের হেফাজতে নেয়। সেইসঙ্গে তাঁর সঙ্গী নীলাদ্রি ঘোষ ও তাপস মণ্ডলকেও সিবিআই হেফাজতে নেওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার তাঁদের তিনজনকেই আলিপুরে সিবিআইয়ের বিশেষ আদালতে তোলা হয়েছিল। জামিনের আবেদন জানান তাঁদের আইনজীবী। বিরোধিতা করে সিবিআই। তাদের দাবি, বৃহত্তর ষড়যন্ত্রে জড়িত এঁরা। তাপস মণ্ডলের টাকা প্রভাবশালীদের কাছেও যেত। তাই তাঁদের হেফাজতে রেখে জেরা করা প্রয়োজন। আদালতে পেশ করার পর ধৃত তাপস মণ্ডল  অভিযোগ করেন, তাঁকে যে সেলটিতে রাখা হয়েছে, তা খুব খারাপ।  তবে সিবিআই জানিয়েছে, তাপস বাবু তদন্তে সহযোগিতা করছেন। এরপর সওয়াল-জবাব শেষ বিচারক তিনজনকেই ৯ মার্চ পর্যন্ত জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *