img-2

Bangla24x7 Desk : দেশের ‘লাইফ লাইন’ ট্রেন পরিষেবা। নির্ভেজাল ঘুরতে যাওয়া হোক বা প্রয়োজনে দূরে যাওয়া, কম সময়ে পৌঁছে যাওয়া জন্য অধিকাংশ মানুষই ব্যবহার করেন মেল ও এক্সপ্রেস ট্রেন। বলা যায়, সর্বস্তরের মানুষ এই রেল পরিষেবা ব্যবহার করতে ভালবাসেন। আর তাতে এবার বাদ সাধছে রেলই। যে স্টেশনের দৈনিক আয় পনেরো হাজারের কম, সেই স্টেশনকে মেল, এক্সপ্রেসের জন্য ব্রাত্য করতে চলেছে রেল।

img-3

 

রেলের তরফে জানানো হয়েছে, আয় কম হলে সেই স্টেশনগুলিতে আর মেল, এক্সপ্রেস দাঁড়াবে না। রেল বোর্ডের ডেপুটি ডিরেক্টর (কোচিং) বিবেককুমার সিংহ ১৯ আগস্ট এই নির্দেশ জারি করেছেন। সম্প্রতি এক্সপ্রেস ট্রেন সংক্রান্ত নতুন এই নীতি নির্দেশিকা সামনে আসায় ব্যাপক আলোচনা শুরু হয়েছে। এই নির্দেশিকা থেকে এটা স্পষ্ট যে, এতদিন ধরে এক্সপ্রেস ট্রেনগুলি যেই সমস্ত ছোট স্টেশনে দাঁড়াত, তা এবার বন্ধ হতে চলেছে।

এতদিন পর্যন্ত এক্সপ্রেস ট্রেনগুলি ৫ হাজার টাকা আয়ের ভিত্তিতে স্টপেজ দিত। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, একটি স্টেশনে ট্রেন থামিয়ে ফের চালু করতে যা বিদ্যুৎ খরচ হয়, তা প্রায় সাতশো টাকার উপর। পাশাপাশি কর্মচারীদের বেতন, সাফাই এবং যাত্রীদের পরিষেবার দায় সব মিলিয়ে খরচ বিশাল। তাই যে সমস্ত স্টেশনে ২০-র কম সংখ্যায় যাত্রী ট্রেনে ওঠেন বা দৈনিক আয় ১৫ হাজারের কম সেই সমস্ত স্টেশনগুলিতে আর দাঁড়াবে না কোনও এক্সপ্রেস ট্রেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *