Bangla24x7 Desk : মহারাষ্ট্র বিধানসভার বাদল অধিবেশন শুরু হয়েছিল বৃহস্পতিবার। দিদিকে অনুসরণ বিজেপির – ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডারে’র অনুসরণে মহারাষ্ট্রে চালু ‘মুখ্যমন্ত্রী মাঝি লড়কি বহিন যোজনা’। এবছর মহারাষ্ট্রের নির্বাচন। তার আগেই ভোটমুখী রাজ্যে একই রকম আর একটি প্রকল্প নিয়ে এল বিজেপি, এনসিপির অজিত পওয়ার শিবির ও শিব সেনার একনাথ শিণ্ডে শিবিরের প্রশাসন। শুক্রবার রাজ্য বাজেট পেশ করেন উপমুখ্যমন্ত্রী অজিত পওয়ার। তখনই তিনি ‘মুখ্যমন্ত্রী মাঝি লড়কি বহিন যোজনা’র ঘোষণা করে জানালেন ২১ থেকে ৬০ বছরের মহিলাদের মাসে মাসে দেড় হাজার টাকা করে দেবে সরকার। সেই সঙ্গে আরও একগুচ্ছ জনমোহিনী ঘোষণা করলেন তিনি। 

এই বাবদ মহারাষ্ট্রের বার্ষিক খরচ পড়বে ৪৬ হাজার কোটি টাকা। লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল মহারাষ্ট্রে বড়সড় ধাক্কা দিয়েছে বিজেপিকে। ৪৮ আসনের মধ্যে আগাড়ির দখলে এসেছে ৩০ আসন। বিজেপি জোট পেয়েছে মাত্র ১৭ আসন। গত বছর মধ্যপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসকে কার্যতই উড়িয়ে দিয়েছিল গেরুয়া শিবির। আর এই সাফল্যের পিছনে অন্যতম ফ্যাক্টর ছিল ‘লাডলি বহেনা’ প্রকল্প। সেকথা মাথায় রেখেই এবার মহারাষ্ট্রেও তাকে ফিরিয়ে আনল ক্ষমতা ধরে রাখতে মরিয়া গেরুয়া শিবির। বাংলায় ভোটপ্রচারে বিজেপি বার বার ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডারে’র নিন্দায় সরব হলেও ভোট বৈতরণি পার হতে সেই ধাঁচের প্রকল্পেই ফের আস্থা রাখল তারা।

এছাড়া পাঁচজন সদস্যের পরিবারগুলিকে ‘মুখ্যমন্ত্রী অন্নপূর্ণা যোজনা’ প্রকল্পের অধীনে বছরে তিনটি রান্নার গ্যাসের সিলিন্ডার দেওয়া হবে বিনামূল্যে। হেক্টর প্রতি ৫ হাজার টাকা দেওয়া হবে মহারাষ্ট্রের প্রত্যেক তুলো ও সোয়াবিন চাষিদের। ১ লা জুলাই থেকে দুগ্ধ খামারের সঙ্গে যুক্ত কৃষকদের লিটার প্রতি ৫ টাকা বোনাস দেওয়া হবে। পশুর আক্রমণে কারও মৃত্যু হলে নিহতের সবচেয়ে নিকট আত্মীয়কে ২৫ লক্ষ টাকা দেওয়া হবে। আগে এই অঙ্ক ছিল ২০ লক্ষ টাকা। রাজ্যের ৪৪ লক্ষ কৃষকের বকেয়া বিদ্যুৎ বিল মকুব করে দেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *