img-2

Bangla24x7 Desk : NCC’র নতুন ক্যাডেট ভরতি বন্ধ , রাজ্যের বিরুদ্ধে বরাদ্দ টাকা বন্ধের অভিযোগ। আর্থিক সমস্যার জেরে বর্তমান ক্যাডেটদের প্রশিক্ষণও বন্ধ রাখতে হচ্ছে। এই মর্মে প্রতিরক্ষামন্ত্রকে চিঠি দিলেন বাংলা ও সিকিমের এনসিসির দায়িত্বপ্রাপ্ত এডিজি। ইতিপূর্বে এ বিষয়ে রাজ্যের অর্থসচিব, এনসিসির ডিরেক্টর জেনারেলকেও জানিয়েছেন বলে চিঠিতে দাবি করা হয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই এই অভিযোগকে কেন্দ্র করে রাজ্যে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতোর।

চিঠিতে বলা হয়েছে, রাজ্যের তরফে প্রাপ্য বরাদ্দ না মিললে এনসিসিতে নতুন ক্যাডেট নেওয়া হবে না। আবার বর্তমান ক্যাডেটদের প্রশিক্ষণেও সমস্যা হবে। জানা গিয়েছে , বি ও সি সার্টিফিকেটের জন্য পরীক্ষাও আটকে গিয়েছে ৪১ হাজার ক্যাডেটের। সমস্ত সমস্যার কথা জানিয়ে প্রতিরক্ষামন্ত্রকের কাছে চিঠি দিল এনসিসি। তাঁদের দাবি, প্রায় ৫ কোটি টাকা বকেয়া রয়েছে। ধাপে ধাপে টাকা চাইলেও তা মেলেনি।

img-3img-4

সাধারণত এনসিসি বা ভারতীয় সেনাবাহিনীর যুবশাখার জন্য প্রয়োজনীয় অর্থের ৭৫ শতাংশ দেয় কেন্দ্র। ২৫ শতাংশ দেয় রাজ্য। কিন্তু রাজ্যের তরফে সেই বরাদ্দ কাটছাঁট করা হয়েছে বলে চিঠিতে অভিযোগ করেছেন এনসিসির এডিজি। তাঁর দাবি, এনসিসির প্রাপ্য অর্থও দেওয়া হচ্ছে না। রাজ্যের অর্থসচিব-সহ একাধিক আধিকারিক ও দপ্তরের কাছে আবেদন করেও সমস্যার সুরাহা হয়নি। বরাদ্দ অর্থ না মেলায় বিপাকে পড়েছে এনসিসি।

বিরোধীদের দাবি, খেলা-মেলা করতে গিয়ে রাজ্যের ভাঁড়ার শূন্য তাই এনসিসির বরাদ্দ বন্ধ করেছে রাজ্য। এনসিসি ও বিরোধীদের অভিযোগের জবাব দিয়ে রাজ্যের অর্থমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যের দাবি, এনসিসি খরচের হিসেব দিলেই রাজ্য টাকা দেবে। তবে এনসিসি এই হিসেব রাজ্যকে দিতে বাধ্য কিনা তা স্পষ্ট নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *