img-2

Bangla24x7 Desk : কেউ ছাড় পাবে না। সময়ে সব প্রমাণ হবে। ব্যাঙ্কশাল আদালতের এজলাস থেকে বেরনোর সময় মুখ বললেন রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। স্বাভাবিকভাবেই তাঁর এহেন মন্তব্যে জল্পনা বাড়ছে। কার উদ্দেশে তিনি এমন কথা বললেন, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

বৃহস্পতিবার ব্যাঙ্কশাল আদালতে পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে পেশ করা হয়। স্বাভাবিকভাবেই রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রীর শারীরিক অবস্থার কথা উল্লেখ করে জামিনের আরজি জানান তাঁর আইনজীবী। সেই সময় বিচারক এজলাসে পার্থকে হাজির করার নির্দেশ দেন তিনি। হাতজোড় করে এজলাসে বেশকিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকেন পার্থ। মৃদুস্বরে পার্থ বাবু ইংরেজিতে বলেন, “নো ওয়ান উইল বি স্পেয়ার। এভিরিথিং উইল বি প্রুভড।” কেউ ছাড় পাবে না। সময়ে সব প্রমাণ হবে। ইডি জানিয়েছে, পার্থ ও অর্পিতার নামে থাকা ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের সংখ্যা ৬০। এ ছাড়া ৩০ টি শেল কোম্পানির কথাও জানানো হয়েছে তদন্তকারীদের তরফে।

এর আগে ইডি হেফাজতে থাকাকালীন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে পার্থ বলেছিলেন, ‘আমি ষড়যন্ত্রের শিকার।’ কে ষড়যন্ত্র করছে, সে বিষয়টা স্পষ্ট না হলেও এ দিনের মন্তব্যেই সেই একই ইঙ্গিত রয়েছে বলে মনে করছেন অনেকে। এ দিন আদালত কক্ষ থেকে বেরনোর সময় দেহরক্ষীর কাঁধে ভর দিয়ে বেরতে দেখা যায় পার্থকে। তিনি যে অসুস্থ , সে কথাও এদিন জানান প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী।

img-3

অনুব্রতর ক্ষেত্রে মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায় প্রকাশ্য মঞ্চ থেকে পাশে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত দিলেও পার্থর ক্ষেত্রে ছবিটা একই রকম নয়। প্রাক্তন মন্ত্রী তথা তৃণমূলের একজন প্রথম সারির সৈনিক হলেও তাঁর ক্ষেত্রে দল পাশে দাঁড়ায়নি। দলীয় সব পদ থেকে অপসারণ করা হয়েছে তাঁকে। তাই তার মুখে ষড়যন্ত্রের কথায় কোনও বিশেষ ইঙ্গিত আছে বলেই মনে করেন কেউ কেউ। ঘাসফুল নেতৃত্ব অবশ্য বলেছে, ষড়যন্ত্রের কথা ধরা পড়ার সঙ্গে সঙ্গেই বলতে পারতেন পার্থ!

জীবন বীমা বা এলআইসি সংক্রান্ত একটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্যও এ দিন তুলে ধরেছেন ইডির আইনজীবীরা। জানানো হয়েছে, অর্পিতার জীবন বীমার টাকা পার্থর অ্য়াকাউন্ট থেকে কাটা হয়েছে। সেই মেসেজ এসেছে পার্থর মোবাইলেই। অন্যদিকে, অসুস্থতার কথা বলে জামিনের আবেদন জানিয়েছেন পার্থর আইনজীবী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *