img-2

Bangla24x7 Desk : ডায়মন্ড হারবার মহিলা খুনের ঘটনায় প্রকাশ্যে চাঞ্চল্যকর তথ্য।পুলিশি তৎপরতায় গ্রেপ্তার অভিযুক্ত রব্বানী শেখ। সূত্রের খবর , আক্রোশবশত মহিলাকে শ্বাসরোধ করে খুন অভিযুক্তের। অভিযুক্তকে ডায়মন্ড হারবার আদালতে পেশ। গত মঙ্গলবার ডায়মন্ড হারবারের বারদ্রোণ এলাকায় জলাশয় থেকে মহিলার দেহ উদ্ধারকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়। মহিলার দেহ উদ্ধারের ঘটনায় পুলিশি তদন্তে উঠে এসেছে একাধিক চাঞ্চল্যকর তথ্য। ডায়মন্ড হারবারের এসডিপিও মিতুন দে’র তৎপরতায় খুনের সাথে মোবাইলের সূত্রে মারফৎ ডায়মন্ড হারবার আদালতে কর্মরত ল-ক্লার্ক ঢোলাহাটের বাসিন্দা অভিযুক্ত রব্বানী শেখকে রামচন্দ্রপুর থেকে গ্রেপ্তার করে ডায়মন্ড হারবার থানার পুলিশ।

img-3

মৃতদেহ উদ্ধারের সময় ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার হওয়া ব্যাগ থেকেই মহিলার মোবাইল পাওয়া যায়। দেহ উদ্ধারের পর তদন্তে কার্যকরী হয়ে ওঠে মোবাইল। পুলিশ সূত্রে খবর , মোবাইলের সূত্র মারফৎ জানা যায় ডায়মন্ড হারবার পুরসভার ৪ নং ওয়ার্ডে ভাড়া থাকতেন মৃত মহিলা বছর পঁয়তাল্লিশের অহল্যা মণ্ডল। স্বামী অলোকেশ মন্ডলের সাথে বিচ্ছেদ হওয়ায় থাকতেন ঐ মহিলা। বছর ছয়েক আগে ডায়মন্ড হারবার আদালতে কর্মরত ল-ক্লার্ক তৎকালীন সময়ে অবিবাহিত রব্বানী শেখের সাথে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন অহল্যা মণ্ডল। সম্প্রতি রব্বানী শেখ বিয়ে করায় বাড়ে বিপত্তি। শুধুই বিবাহিত প্রেমিকের সাথে পরকীয়া প্রেমের জন্য খুন ? রব্বানী শেখের বর্তমান স্ত্রীকে পরকীয়া সম্পর্ক জানানোর জন্য হুমকি দেওয়ার অভিযোগ। ব্ল্যাকমেল করে বারবার টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ অহল্যা মণ্ডলের বিরুদ্ধে । অভিযোগ , ডায়মন্ড হারবার আদালত চত্বরে গিয়ে রব্বানী শেখের কাছে টাকা চেয়ে চাপ দেয় অহল্যা মণ্ডল।

বাইকে করে অহল্যাকে নিয়ে দোস্তিপুর রোড হয়ে উস্থি থেকে ঘুরে বারদ্রোন এলাকায় পৌঁছায় রব্বানী। সেখানেই টাকা নিয়ে বচসা বাঁধে দুজনের মধ্যে। রব্বানি অহল্যা মণ্ডলের ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে শ্বাসরোধ করে খুন করে। মৃত্যু নিশ্চিত করতে অহল্লা মণ্ডলের দেহ জলাশয় ফেলে দেয়। পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে খুনের দায় স্বীকার করেছে অহল্লা খুনের মূল অভিযুক্ত রব্বানী শেখ। দেহ ময়না তদন্ত করার পর দেহ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়। ঘটনায় অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করেছে ডায়মন্ড হারবার থানার পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *