img-2

Bangla24x7 Desk : পেলেন ‘সুপ্রিম’ অনুমতি , অভিষেকের দুবাই যাত্রায় বাধা নয় , জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট। সোমবার শীর্ষ আদালত ইডিকে জানিয়ে দিয়েছে, তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে কোনও কড়া পদক্ষেপ করা যাবে না। এমনকি তাঁর চিকিৎসার জন্য দুবাই যাওয়ার ক্ষেত্রেও কোনও বাধা নেই।

অভিষেকের বিরুদ্ধে তদন্ত সংক্রান্ত মামলায় সোমবার পর্যন্ত কোনও কড়া পদক্ষেপ করা হবে না বলে জানিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। তবে সেই রক্ষাকবচের মেয়াদ আরও বাড়বে কি না তা নিয়েই ছিল প্রশ্ন। কেন না, রক্ষাকবচ বাড়লে আগামী দিনেও অভিষেকের বিরুদ্ধে কোনও কড়া পদক্ষেপ করতে পারবে না ইডি। তা না হলে কয়লাপাচার-কাণ্ডের তদন্তকারী কেন্দ্রীয় সংস্থা ইডি অভিষেকের বিরুদ্ধে প্রয়োজনমতো পদক্ষেপ করতে পারবে। সোমবার অবশ্য আদালত স্পষ্ট করে দিয়েছে, অভিষেকের রক্ষাকবচ বজায় থাকছে। তার বিরুদ্ধ কড়া ব্যবস্থা আপাতত নিতে পারছে না কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা ইডি।

img-3

প্রবীণ আইনজীবী অভিষেক মনু সিঙভি এবং কপিল সিব্বল তৃণমূল সাংসদের হয়ে এদিন সুপ্রিম কোর্টে সওয়াল করেন। বিপরীত দিকে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার হয়ে সওয়াল করেন সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা। সওয়াল-জবাব শেষে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি ইউ ইউ ললিতের বেঞ্চ অভিষেককে বিদেশ সফরের অনুমতি দিয়েছে। শীর্ষ আদালতের এই রায়ে স্বভাবতই স্বস্তিতে সর্বভারতীয় তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক।

২ সেপ্টেম্বর সিজিও কমপ্লেক্সে প্রায় ৭ ঘণ্টা জেরা করেন ইডির তদন্তকারী আধিকারিকরা। জেরা শেষে বাইরে বেরিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার তথা বিজেপিকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ করেছিলেন অভিষেক। তিনি জানিয়েছিলেন, রাজনৈতিকভাবে লড়াইতে পেরে না উঠে ইডি-সিবিআই দেখিয়ে তাঁকে ভয় দেখানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। পাশাপাশি তিনি জানিয়েছিলেন, তিনি কোনও অপরাধ করেননি, তাই তদন্তে সবরকমের সহায়তা করবেন। প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়, তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডলের গ্রেফতারির পর রাজ্যের শাসকদলের ওপর ক্রমশই চাপ বাড়ছিল। এবার দলের ‘নম্বর ২’ আদালতের রায়ে স্বস্তি পাওয়ায় তা তৃণমূলের জন্য যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *