Bangla24x7 Desk : শিক্ষা , স্বাস্থ্য সহ একাধিক মন্ত্রক চায় TDP , নীতিশের দাবি রেল সহ ৩ পূর্ণ মন্ত্রীত্ব – ব্যপক চাপে মোদী-শাহ। ২০১৪ লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি জিতেছিল ২৮২ আসনে , ২০১৯ এ তা পৌঁছয় ৩০৩। কিন্তু ২০২৪ নির্বাচনে বিজেপির আসন সংখ্যা ২৪০। ২০১৪ এবং ২০১৯ সালে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা ছিল , যার কারণে সংসদে শক্তি প্রদর্শন করা বিজেপির পক্ষে খুব একটা কষ্টসাধ্য ছিল না। কিন্তু এবারে ছবিটা অন্য। বাগে পেয়ে মোদী- শাহকে চেপে ধরেছে অন্ধ্রপ্রদেশের চন্দ্রবাবু নাইডু । একই দাবি বিহারের মুখ্য মন্ত্রী নীতিশ কুমারের। 

কেন্দ্রে সরকার গড়তে বিজেপির চার শরিক খুব গুরুত্বপূর্ণ। এক, চন্দ্রবাবু নায়ডু। তাঁর দাবি অন্তত ৪টি পূর্ণ মন্ত্রিত্ব। এবং স্পিকারের পদ। দুই, নীতীশ কুমার। তাঁর দাবি রেল-সহ ৩ পূর্ণ মন্ত্রিত্ব, একাধিক প্রতিমন্ত্রী। এবং এনডিএর একটি সমন্বয় কমিটি গড়া যার মাথায় থাকবেন নীতীশ নিজেই। তিন নম্বর গুরুত্বপূর্ণ লোক হলেন একনাথ শিণ্ডে। তাঁর বিশেষ দাবি নেই। গোটা দুই পূর্ণ মন্ত্রিত্ব। চার নম্বর গুরুত্বপূর্ণ লোকটি হলেন চিরাগ পাসওয়ান। তাঁর দাবি, ১ পূর্ণ মন্ত্রীর পদ ও এক প্রতিমন্ত্রীর পদ। চন্দ্রবাবু নায়ডুর দাবি সড়ক পরিবহণ মন্ত্রক, শিক্ষা মন্ত্রক, গ্রামন্নয়ন মন্ত্রকের মতো গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রক। জেডিইউ চায় রেল মন্ত্রক-সহ একাধিক গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রক। 

বিজেপি সূত্রের খবর, শরিকদের সঙ্গে আলোচনায় সংখ্যার বিচারে খানিকটা হলেও নমনীয়। তবে গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রক ছাড়া হবে না। টিডিপিকে যেমন স্পিকারের পদ ছাড়া হবে না। খুব বেশি হলে ডেপুটি স্পিকারের পদ দেওয়া হতে পারে। জেডিইউয়ের খাতায় রাজ্যসভার ডেপুটি চেয়ারম্যানের পদ আগে থেকেই আছে। কিন্তু মোদি-শাহদের স্পষ্ট বক্তব্য, সড়ক পরিবহণ বা গ্রামোন্নয়নের মতো গুরুত্বপূর্ণ দপ্তর কাউকে ছাড়া হবে না। রেলমন্ত্রকও নিজেদের হাতেই রাখতে চায় গেরুয়া শিবির। বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্বের স্পষ্ট সিদ্ধান্ত, কোনও গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রক ছাড়া হবে না শরিকদের। অর্থমন্ত্রক, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক, বিদেশ মন্ত্রক এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রক ছাড়ার প্রশ্নই নেই। তবে এখনও রেল, পশুপালন, শিক্ষা নিয়ে আলোচনা চলছে দুই শরিকের সঙ্গে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *