img-2

Bangla24x7 Desk : পড়ানোর আছিলায় ফাঁকা ঘরে ইচ্ছার বিরুদ্ধে নবম শ্রেণির ছাত্রীর যৌনাঙ্গে আঙুল গৃহশিক্ষকের ! গ্রেপ্তার অভিযুক্ত। নক্কারজনক ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিন ২৪ পরগনার নরেন্দ্রপুর থানা এলাকায়। ছাত্রীর পরিবারের তরফে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে নরেন্দ্রপুর থানায় লিখিত অভিযোগ জানানো হয়। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে নরেন্দ্রপুর থানার পুলিশ। পুলিশ সূত্রে খবর, ধৃতের নাম দেবব্রত মাইতি। অভিযোগ পেয়েই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিশ। অভিযুক্তর বিরুদ্ধে পকসো আইনে মামলা রুজু করেছে।

img-3

পুলিশ জানিয়েছে, নবম শ্রেণির ছাত্রীটিকে পড়াতেন দেবব্রত। পড়ানোর নাম করেই নিজের বাড়িতে ডেকেছিলেন ছাত্রীটিকে। বাড়িতে দেবব্রত ছাড়া আর কেউ ছিলেন না বলে পুলিশ সূত্রে খবর।  নাবালিকার দাবি, পড়ানোর নামে বাড়িতে একা পেয়ে যৌন নির্যাতন করে গৃহশিক্ষক দেবব্রত মাইতি। অভিযোগ, নাবালিকার যৌনাঙ্গে আঙুল ঢুকিয়ে দেয় সে। যার জেরে অসুস্থ হয়ে পড়ে ছাত্রী। বিষয়টি জানা মাত্রই ক্ষোভে ফেটে পড়েন নাবালিকার পরিবারের সদস্যরা। ঘটনার জেরে অসুস্থ হয়ে পড়েন ছাত্রীটি। বাড়িতে ফিরে আসার পর সম্পূর্ণ ঘটনা মাকে জানায় নির্যাতিতা।

মঙ্গলবার রাতেই দেবব্রতের বিরুদ্ধে নরেন্দ্রপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন নির্যাতিতার মা। অভিযুক্ত শিক্ষককে থানায় নিয়ে যাওয়া পর তাঁকে এই বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে শিক্ষক জানান, তিনি কিছুই করেননি। কেন তাঁকে থানায় নিয়ে আসা হল, তা বুঝতে পারছেন না তিনি। নির্যাতিতার শারীরিক পরীক্ষা করা হয়েছে সোনারপুর গ্রামীণ হাসপাতালে। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে পকসো আইনে মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *