img-2

Bangla24x7 Desk : আগামী অর্থবর্ষে রাজস্ব ঘাটতির পরিমাণ ৫.৯ হতে চলেছে শতাংশ। টাকার হিসাবে বলতে গেলে সেই ঘাটতির অঙ্কটা ১৫ লক্ষ ৪৩ হাজার কোটি টাকা। এই পুরো টাকাটায় বন্ড বিক্রি করে এবং ঋণের মাধ্যমে বাজার থেকে তুলতে হবে সরকারকে। এই অঙ্কটা এখনও পর্যন্ত রেকর্ড। গত বছর এই ঋণ নেওয়ার পরিমাণটা ছিল ১৪ লক্ষ ৯৫ হাজার কোটি টাকা। এর মধ্যে কিছুটা টাকা বিভিন্ন বন্ড বিক্রি করে তুলতে সক্ষম হয়েছে রিজার্ভ ব্যাংক। সেই অঙ্কটা বাদ দিলেও ১৪ লক্ষ ২১ হাজার কোটি টাকা ঋণ নিতে হচ্ছে মোদি সরকারকে।

img-3

আয়করে বিপুল ছাড়। রেলে বিরাট বরাদ্দ। আবাস যোজনায় অতিরিক্ত খরচ। অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণের বাজেট বক্তৃতায় প্রতিশ্রুতি নেহাত কম নেই। অথচ বাড়তি রোজগারের জোগান কোথা থেকে আসবে তাঁর সংস্থান পুরোপুরি দিতে পারেননি অর্থমন্ত্রী। এই বিপুল রাজস্ব ঘাটতি আগামী দিনে নির্মলা সীতারমণের জন্য চ্যালেঞ্জ হতে পারে। সেটা অনুধাবন করতে পেরেছেন অর্থমন্ত্রী নিজেও। সেকারণেই তিনি টার্গেট রেখেছেন, আগামী ৩ বছরে অর্থাৎ ২০২৬ সালের মধ্যে এই রাজস্ব ঘাটতির পরিমাণটা কমিয়ে ৫ শতাংশের নিচে নামিয়ে আনার লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছেন তিনি। সেক্ষেত্রে তাঁর হাতিয়ার হতে পারে বেসরকারিকরণ বা বিকেন্দ্রীকরণ। যা এবারের বাজেটেও বাড়ানোর কথা বলা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *