img-2

Bangla24X7 Desk : অনুপস্থিত কর্মচারীদের বিরুদ্ধে আরও কড়া মনোভাব নবান্নের। আজ কোন কোন সরকারি কর্মচারী বা আধিকারিক এলেন না বিভিন্ন দফতরগুলিতে? জরুরিভিত্তিতে রিপোর্ট দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে নবান্নের বিভিন্ন দফতরের বিভাগীয় প্রধানদের। এ নিয়ে বিকেল ৫টার মধ্যে রিপোর্ট দিতে নির্দেশ দিল নবান্ন বিভিন্ন দফতরের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধানদের। কিছুক্ষণ আগেই নবান্নের তরফে বিভিন্ন দফতরের প্রধান সচিবদের কাছে এই নির্দেশ পাঠানো হয়েছে। যাঁরা যাঁরা অনুপস্থিত তাঁদের বিরুদ্ধে তড়িঘড়ি ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে বলেই মনে করা হচ্ছে।

img-3

ধর্মঘটের দিনেই অন্যান্য দিনের তুলনাও বেশি উপস্থিতি হার দেখা গেল নবান্নে। নবান্ন সূত্রে খবর দুপুরে একটা পর্যন্ত উপস্থিতির হার ৯৫ শতাংশের বেশি। যা অন্যান্য দিনে তুলনায় অনেকটাই বেশি বলেই দাবি করছে প্রশাসনিক মহলের একাংশ। রাজ্যের কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় গুলিতে উপস্থিতির হার দেখা গেল ৯৭ শতাংশরও বেশি। উচ্চশিক্ষা দফতর সূত্রে খবর রাজ্যে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় মিলিয়ে এখনও পর্যন্ত উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে ৫০৩টি। উচ্চশিক্ষা দফতর সূত্রে খবর এই ৫০৩ টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অধ্যাপক অধ্যাপিকাদের উপস্থিতির হার দুপুরে ১টা পর্যন্ত ৯৬.৬৫ শতাংশ। যা অন্যান্য দিনে তুলনায় অনেকটাই বেশি বলেই দাবি করছেন উচ্চশিক্ষা দফতরের আধিকারিকরা।

শোকজের উত্তর যথাযথ না হলে বিভাগীয় তদন্তের মুখেও পড়তে হবে সংশ্লিষ্ট কর্মচারী বা আধিকারিককে। গোটা প্রক্রিয়াটি ২৪ শে মার্চ এর মধ্যে শেষ করতেও রাজ্য অর্থদফতর নির্দেশিকা দিয়েছে। পাশাপাশি শুক্রবার সকালেই ৪ দফায় উপস্থিতির হার নেওয়ার কথাও জানানো হয়েছে নবান্নের তরফে। তার জন্য পৃথক পৃথকভাবে ইমেইল করেও জানানোর কথা বলা হয়েছে জেলাগুলিকে। সবমিলিয়ে সংগ্রামী যৌথ মঞ্চের ধর্মঘটের দিন আরও কড়া মনোভাব নিয়েছে নবান্ন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *