Bangla24x7 Desk : কাশ্মীরের জন্য ‘জিরো টেরর প্ল্যান’ – জঙ্গি আশঙ্কার মাঝেই অমরনাথ যাত্রার জন্য একগুচ্ছ নির্দেশ শাহ’র। কাশ্মীরে সন্ত্রাসদমন নিয়ে রবিবার উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ৬ ঘণ্টা ধরে এই বৈঠক চলেছে। কাশ্মীর নিয়ে বেশ কিছু নির্দেশিকা দিয়েছেন তিনি। পরপর জঙ্গি হামলায় কেঁপে উঠেছে কাশ্মীর। এহেন পরিস্থিতিতে চলতি মাস থেকেই শুরু হচ্ছে অমরনাথ যাত্রা। তৃতীয়বার ক্ষমতায় এসে হঠাৎই যেন কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদি সরকারের মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে কাশ্মীর। দীর্ঘ ছ’ঘণ্টা ধরে এই উচ্চপর্যায়ের বৈঠক চলে। বিকেলে বৈঠক শেষ হওয়ার পরে জানা যায়, কাশ্মীরের জন্য ‘জিরো টেরর প্ল্যান’ তৈরির নির্দেশ দিয়েছেন শাহ। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়, এরিয়া ডমিনেশন এবং জিরো টেরর প্ল্যানের মাধ্যমে যেভাবে কাশ্মীরে সাফল্য মিলেছে, জম্মুর জন্যও সেইভাবে কাজ করতে হবে। শাহ আরও বলেছেন, সমস্ত নিরাপত্তারক্ষা সংস্থাগুলোকে এক মিশন ভেবে কাজ করতে হবে যেন দ্রুত সমস্যার মোকাবিলা করা যায়।

প্রত্যেক সংস্থার কাজের মধ্যে যেন সামঞ্জস্য থাকে। রবিবার দিল্লিতে আয়োজিত ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন জম্মু ও কাশ্মীরের লেফটেন্যান্ট গভর্নর মনোজ সিনহা, জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল , কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব অজয় ভল্লা, সেনাপ্রধান জেনারেল মনোজ পাণ্ডে, এবং হবু সেনাপ্রধান উপেন্দ্র দ্বিবেদী, আইবি ডিরেক্টর তপন ডেকা, সিআরপিএফের ডিরেক্টর জেনারেল অনিশ দয়াল সিং, কাশ্মীর পুলিশের ডিজিপি আরআর সোয়াইন এবং অন্যান্য নিরাপত্তা এজেন্সির শীর্ষ আধিকারিকরা। আগামী ২৯ জুন থেকে শুরু হচ্ছে অমরনাথ যাত্রা। সূত্রের দাবি, কোনওভাবেই যাতে তীর্থযাত্রীদের কোনওরকম সমস্যায় না পড়তে হয়, নিরাপত্তা আধিকারিকদের সেটা নিশ্চিত করার নির্দেশ দিয়েছেন শাহ। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কথায়, কাশ্মীরের হামলার ঘটনাকে এখন ছায়াযুদ্ধ বলা যেতে পারে। আগের মতো ষড়যন্ত্র করে আক্রমণ শানাতে পারে না জঙ্গি সংগঠনগুলো। তবে সন্ত্রাসবাদকে সমূলে উৎখাত করাই মোদি সরকারের লক্ষ্য বলে জানিয়েছেন শাহ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *